Breaking News

করোনা থেকে বাঁ’চতে অ’ত্যধিক মাত্রায় গোমূ’ত্র পান করে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন যোগগুরু বাবা রামদেব

করোনাভাইরাস সারাবিশ্বেই ব্যা’পক আকারে ছ’ড়িয়ে পড়ছে।

ভাইরাসের থা’বা আ’টকাতে প্র’তিষে’ধক তৈরির জন্য রাত-দিন এক করে ফেলছেন বিজ্ঞানী-গবেষকরা।

সম্প্রতি ভারতের হিন্দু মহাসভার পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, করোনা রু’খতে একমাত্র ‘মহৌষধি’ হল গো মূ’ত্র।

করোনাভারাসের ওষুধ হিসেবে গো মূ’ত্র পানের দাবিকে কেন্দ্র করে ভারতের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে বহু পোস্ট।

সম্প্রতি সেদেশের ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে, করোনাভাইরাসের হা’না থেকে বাঁ’চতে অ’ত্যধিক মাত্রায় গো মূ’ত্র পান করে এবার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন যোগগুরু বাবা রামদেব।

দাবির স্বপক্ষে রামদেবের একটি ছবিও পোস্ট করা হয়। যেখানে হাসপাতালে ভর্তি থাকতে দেখা গেছে তাকে। তাকে ঘিরে রয়েছেন তার ভক্তরা। ফেসবুকের বেশ কিছু অ্যাকাউন্ট থেকে একই ছবি ও দাবি করে এই পোস্ট দেয়া হয়েছে।

ইংরেজিতে ‘Baba Ramdev Weak Hospital’ লিখে গুগল-সার্চের ফলে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত আসল ছবিটির সন্ধান মেলে। ওই খবর অনুযায়ী, দেরাদুনে অ’নশন ভ’ঙ্গের পর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল রামদেবকে। ছবিটি ওইসময় তোলা হয়েছিল। ভাইরাল হওয়া ছবি প্রসঙ্গে বাবা রামদেবের মুখপাত্র তিজারওয়ালা এসকে একটি টুইট করেছেন। টুইটে তিনি লিখেছেন, এসব ভু’য়া খবর। রামদেব সম্পূর্ণ সুস্থ রয়েছেন।

About admin

Check Also

ঢাকার কেরানীগঞ্জে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়ে এক যুবতী আত্মহত্যা করেছে । নিহত যুবতীর নাম ফরিদা আক্তার রান্দি(২৮)। এই ঘটনাটি ঘটেছে আজ বৃহস্পতিবার(০৫মার্চ) মডেল থানার জিনজিরা ইউনিয়নের অমৃতপুর এলাকায় দুপুর আড়াইটায় । পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করেছে। কেরানীগঞ্জ মডেল থানার এসআই জামিনুর রহমান জানান, নিহত ফরিদা আক্তার ৩ মাস আগে স্বামী সালাউদ্দিনের কাছ থেকে তালাকপ্রাপ্ত হয়। এতে সে মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়ে। এই ঘটনার সুত্রধরেই পরিবারের সবার অজান্তে সে একটি ঘরের ভিতর তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে সাথে সাথেই তার সারা শরীর আগুনে পুড়তে থাকে।তার চিৎকারে আশেপাশের মানুষ আসার আগেই সে আগুনে পুড়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। নিহত ফরিদার বাবার নাম মৃত খোরশেদ আলম। তাদের বাড়ি নোয়াখালি জেলার চাটখিল থানার রামপুর গ্রামে। তারা অমৃতপুর এলাকায় দোলনের বাড়িতে ভাড়া থাকতো। এব্যাপারে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি কাজী মাইনুল ইসলাম জানান,এই ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। আমরা বিষয়টিকে তদন্ত করে দেখব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *